রাজশাহী ও যশোরে দৈনিক দেশেরপত্রের ব্যুরো অফিস উদ্বোধন

রাজশাহী মহানগরীর কাজলায় দৈনিক দেশেরপত্রের ব্যুরো অফিস উদ্বোধন অনুষ্ঠানে মঞ্চে উপবিষ্ট (বাম থেকে) রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা ইয়াসমিন রেজা ফেন্সী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ শফিকুর রহমান বাদশাহ ও সভাপতি অধ্যক্ষ বজলুর রহমান, দৈনিক দেশেরপত্রের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক রুফায়দাহ পন্নী, উপদেষ্টা- মসীহ উর রহমান এবং রাজশাহী বিভাগীয় ব্যুরো প্রধান- মনিরুয্যামান মনির।
১০ মার্চ ২০১৪ রাজশাহী মহানগরীর কাজলায় দৈনিক দেশেরপত্রের ব্যুরো অফিস উদ্বোধন অনুষ্ঠানে মঞ্চে উপবিষ্ট (বাম থেকে) রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা ইয়াসমিন রেজা ফেন্সী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ শফিকুর রহমান বাদশাহ ও সভাপতি অধ্যক্ষ বজলুর রহমান, দৈনিক দেশেরপত্রের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক রুফায়দাহ পন্নী, উপদেষ্টা- মসীহ উর রহমান এবং রাজশাহী বিভাগীয় ব্যুরো প্রধান- মনিরুয্যামান মনির।

 

মানবতার কল্যাণে সত্যের প্রকাশ ঘটানোর অঙ্গীকারকে হৃদয়ে ধারণ করে দেশের ১৬ কোটি মানুষকে ঐক্যবদ্ধ করতে এবং ধর্মব্যবসা ও ধর্ম নিয়ে অপরাজনীতির বিরুদ্ধে জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে দেশেরপত্র এগিয়ে যাচ্ছে দুর্বার গতিতে। এরই ধারাবাহিকতায় রাজশাহী ও যশোরে সর্বস্তরের মানুষের স্বতস্ফূর্ত অংশগ্রহণের মধ্য দিয়ে গতকাল উদ্বোধন করা হয় দেশেরপত্রের আঞ্চলিক ব্যুরো অফিস। গতকাল সন্ধ্যা ৭ টায় রাজশাহীর মতিহার থানাধীন কাজলায় দৈনিক দেশেরপত্রের রাজশাহী বিভাগীয় ব্যুরো অফিস উদ্বোধন করা হয়। ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক শাহানা পন্নী রুফায়দাহ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যক্ষ বজলুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ শফিকুর রহমান বাদশাহ ও মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা ইয়াসমিন রেজা ফেন্সী এবং দৈনিক দেশেরপত্রের উপদেষ্টা মসীহ উর রহমান। তাছাড়া আরো উপস্থিত ছিলেন রাজশহী মহানগর আওয়ামী লীগের সদস্য ও ১নং ওয়ার্ডের সভাপতি আবদুর রউফ, বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী, রাজশহী মহানগর জাতীয় পার্টির যুগ্ম আহ্বায়ক সালাহ উদ্দিন মিঠু, বাংলাদেশ ওয়ার্কার্স পার্টির মতিহার থানার সম্পাদক রমজান আলী ও মহানগর ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি মাসুম আক্তার। অনুষ্ঠানের সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন দেশেরপত্রের রাজশাহী জেলা ব্যুরো প্রধান ওয়ালিউল আউয়াল। অনুষ্ঠানের উদ্বোধনী বক্তব্য রাখেন রাজশাহী বিভাগীয় ব্যুরো প্রধান মনিরুয্যামান মনির। বক্তব্যে তিনি জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করতে দেশেরপত্রের চলমান কার্যক্রম তুলে ধরেন। অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যক্ষ বজলুর রহমান বলেন, “ধর্ম এসেছে মানবতার কল্যাণে। অথচ আজ ধর্মব্যবসায়ীরা এই ধর্মকে ব্যবহার করে তাদের স্বার্থ হাসিল করছে। তারা তাদের রাজনৈতিক ফায়দা হাসিলের অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করছে এই ধর্মকে। আমরা বাংলাদেশের স্বাধীনতার ইতিহাসে এই ধর্মব্যবসায়ীদের নেতিবাচক ভূমিকাকে বরাবরই প্রত্যক্ষ করেছি।” তিনি আরো বলেন, “আমরা এক সময় এই ধর্মব্যবসার বিরুদ্ধে কথা বলতাম। আজ দৈনিক দেশেরপত্রও বলছে। এজন্য দেশেরপত্রকে অসংখ্য ধন্যবাদ। ধর্মব্যবসায়ীদের মুখোশ উন্মোচনে দেশেরপত্রের এই উদ্যোগে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সবসময় তাদের পাশে থাকবে।”
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ শফিকুর রহমান বাদশাহ বলেন, “১৯৭১ এ সাড়ে সাত কোটি বাঙ্গালি ঐক্যবদ্ধ হয়ে অন্যায়ের বিরুদ্ধে, অপশক্তির বিরুদ্ধে, যুলুমের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করেছিলাম। অনেক রক্ত, অনেক ত্যাগের বিনিময়ে আমরা বাংলার মাটি হায়েনামুক্ত করেছিলাম।” ধর্মব্যবসায়ী ও ধর্ম নিয়ে অপরাজনীতির নিন্দা করে তিনি বলেন, “একটা বিশেষ শ্রেণি সেদিন আমাদের সাথে ঐক্যবদ্ধ হয় নি। তারা অন্যায়ের পক্ষ হয়ে কাজ করেছিল। তারা বিদেশি প্রভুদের সাথে হাত মিলিয়ে এদেশের মানুষের বিরুদ্ধে অবতীর্ণ হয়েছিল। তারা আজও এ দেশে মানুষের মধ্যে ধর্মের নামে ব্যবসা করে বেড়ায়, অপ-রাজনীতি করে বেড়ায়। তারা আজও ধর্মের নামে সহিংসতা, অগ্নিসংযোগ, ভাঙচুর, হত্যাকাণ্ড ইত্যাদি চালাচ্ছে। এই জাতির ঐক্যের পথে তারা সবসময় বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে। আর এই কাজ করতে গিয়ে তারা নির্লজ্জের মত ধর্মের মত একটি পবিত্র বিষয়কে ব্যবহার করেছে।” ধর্মব্যবসায়ীদের প্রকৃত রূপ উন্মোচন ও জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করতে দেশেরপত্রের চলমান কার্যক্রমের প্রশংসা করে তিনি বলেন, “দেশেরপত্র মানবতার কল্যাণে আজ যে কাজ করে যাচ্ছে তার সাথে আমরা ঐক্যবদ্ধ থাকব। প্রকৃত ইসলাম প্রচারের জন্য আপনাদের ধন্যবাদ। আপনারা যতদিন এই ধর্মব্যবসার বিরুদ্ধে, জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে কাজ করবেন ততদিন আমরা আপনাদের সাথে থাকব।”

123
যশোরের শার্শার নাভারণ এ্যাথলেটিক ক্লাব ও লাইব্রেরি প্রাঙ্গণে দৈনিক দেশেরপত্রের যশোর ব্যুরো অফিস উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মঞ্চে উপবিষ্ট বাম থেকে শার্শা উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ও শার্শা ইউপি চেয়ারম্যান সোহরাব হোসেন, দৈনিক দেশেরপত্রের নির্বাহী সম্পাদক শফিকুল আলম উখবাহ্, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সালেহ আহম্মেদ মিন্টু এবং দৈনিক দেশেরপত্রের যশোর ব্যুরো প্রধান মোঃ আরিফুল ইসলাম।

এদিকে যশোরের শার্শায় এ্যাথলেটিকস্ ক্লাব মাঠে দৈনিক দেশেরপত্রের ব্যুরো অফিস উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন দৈনিক দেশেরপত্রের নির্বাহী সম্পাদক মো: শফিকুল আলম উখবাহ্। তাছাড়া বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ১০ নং শার্শা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো: সোহারাব হোসেন, দৈনিক দেশেরপত্রের সহকারী সম্পাদক মোঃ সাইফুর রহমানসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।
অনুষ্ঠানের শুরুতেই শুভেচ্ছা বক্তব্য পেশ করেন অনুষ্ঠানের সভাপতি ও দৈনিক দেশেরপত্রের যশোর অঞ্চলের ব্যুরো প্রধান আরিফুল ইসলাম। তিনি উপস্থিত সবাইকে সালাম জানিয়ে বলেন, আজ আমাদের দেশ একটা ক্রান্তিকাল অতিক্রম করছে। এই দুর্দিনে দৈনিক দেশেরপত্র মানবতার কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছে। এই মহান কাজকে সুচারুভাবে পরিচালনা করতে হলে আমাদেরকে আবার ৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের মতো ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। আজকে পশ্চিমা সভ্যতা ও ধর্মজীবী আলেম-মোল্লারা আমাদের সেই ঐক্যকে নষ্ট করেছে। আমরা যদি আবার ঐক্যবদ্ধ হই তাহলে পৃথিবীর কোন শক্তি নাই, আমাদের সামনে মাথা তুলে দাঁড়াতে পারবে না। তাই আসুন, আমরা এই অশান্তি থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য সত্যের পক্ষে, হকের পক্ষে, ন্যায়ের পক্ষে ঐক্যবদ্ধ হই।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ১০ নং শার্শা ইউপি চেয়ারম্যান সোহরাব হোসেন সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, দেশেরপত্র একটি জাতীয় পত্রিকা। এই পত্রিকা ধর্মব্যবসায়ী ও জঙ্গিদের বিরুদ্ধে জনগণকে সচেতন করার লক্ষ্যে এবং ঐক্যহীন হানাহানিতে লিপ্ত এই জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করার জন্য কাজ করছে। এজন্য দেশেরপত্রের সাথে সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ। আজ থেকে কিছুদিন আগেও জঙ্গিবাদ আমাদের দেশকে যেভাবে অস্থিতিশীল করে রেখেছিল, দেশেরপত্র সেমিনার, আলোচনা সভা, ডকুমেন্টারি প্রদর্শন ইত্যাদির মাধ্যমে আজ জাতিকে জঙ্গিবাদের কবল থেকে অনেকটা উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছে। আমি দেশেরপত্রের আজকের অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে নিজেকে ভাগ্যবান মনে করছি। কারণ, ধর্মব্যবসায়ীদের মুখোস উম্মোচন হোক, এটা আমাদের সবার চাওয়া।
দেশেরপত্রের সহকারী সম্পাদক সাইফুর রহমান সকলকে অভিনন্দন ও সালাম জানিয়ে বলেন, এক শ্রেণির ধর্মব্যবসায়ীরা ধর্মের নামে অরাজকতা সৃষ্টি করে ও সাধারণ মানুষকে প্রভাবিত করে ঐক্য নষ্ট করছে। অথচ রসুলের আবির্ভাব হয়েছে মানুষের মধ্যে শান্তি ন্যায় সুবিচার প্রতিষ্ঠার জন্য। যামানার এমাম প্রমাণ করে দিয়েছেন যে, ইসলাম স্বার্থ হাসিলের জন্য জন্য বা অপরাজনীতি করার জন্য নয়। এটা শান্তির জন্য, ঐক্যর জন্য, ন্যায়ের জন্য। এই মহাসত্য আজ আমাদেরকে উপলব্ধি করতে হবে। ৫৬ হাজার বর্গমাইলের এই বাংলাদেশের ১৬ কোটি মানুষকে ঐক্যবদ্ধ করার মতো বিশাল ও মহান কাজ দেশেরপত্রের একার পক্ষে সম্ভব নয়, এই মহান কাজে যারা ধর্মকে ভালবাসেন তাদের সকলকেই এগিয়ে আসতে হবে। তাই আসুন, দেশের অস্তিত্বের প্রয়োজনে আমরা এই অপশক্তিকে রুখে দেই। অন্যথায়, এই দেশ এক অনিবার্য সংকটের মধ্যে পতিত হবে যা থেকে জাতিকে উদ্ধার করা দুরুহ হয়ে পড়বে।
আলোচনা অনুষ্ঠানের আগে দৈনিক দেশেরপত্রের উদ্যোগে একটি বিশাল র‌্যালি শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক, বেনাপোল, বাগআস্ত্র, উলাসি, সাতক্ষিরা মোড় প্রদক্ষিণ করে।

123
দৈনিক দেশেরপত্রের যশোর ব্যুরো অফিস উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজিত র‌্যালি, শার্শা, বেনাপোল ও বাগআচড়া শহর প্রদক্ষিণ করে

লেখাটি শেয়ার করুন আপনার প্রিয়জনের সাথে

Share on email
Email
Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on skype
Skype
Share on whatsapp
WhatsApp
জনপ্রিয় পোস্টসমূহ