মহাপ্রয়াণ দিবসে আত্মার পিতার প্রতি হাজার সালাম

Untitled-2হোসাইন মোহাম্মদ সেলিম
এমাম, হেযবুত তওহীদ

আজ থেকে চার বছর আগে এই দিনে হেযবুত তওহীদের প্রতিষ্ঠাতা, এ যুগের এমাম জনাব মোহাম্মদ বায়াজীদ খান পন্নী প্রত্যক্ষ জগৎ থেকে পর্দা গ্রহণ করে আল্লাহর সান্নিধ্যে গমন করেন। তাঁর আত্মার সন্তান হেযবুত তওহীদের মোজাহেদ মোজাহেদাদের জন্য আজকের দিনটি অত্যন্ত স্মরণীয় ও বেদনার দিন। এই দিনে আমাদের জীবনে একটি অধ্যায়ের সমাপ্তি হয়ে নতুন অধ্যায়ের সূচনা ঘটে।
সমস্ত পৃথিবীতে যখন অন্যায়, অবিচার, অনাচার, দুর্নীতি, শোষণ, বৈষম্য, যুদ্ধ, রক্তপাত, হানাহানি, অশান্তি ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে, পৃথিবীর সর্বত্র চলছে মিথ্যার জয়জয়কার, সত্যের প্রদীপ নিভে গিয়ে যখন জগৎ ঘোর অন্ধকারে নিমজ্জিত, বিভ্রান্ত মানবজাতি যখন পথের সন্ধানে দিশেহারা, মানুষ তার আবাসভূমি পৃথিবীকে, এর জলরাশি ও বায়ুমণ্ডলকে প্রায় ধ্বংস করে ফেলেছে, তখন আল্লাহ মানবজাতির শান্তির দূত হিসেবে মহাসত্য দিয়ে পাঠালেন এমামুযযামানকে। সেই মহাসত্য হচ্ছে আল্লাহর তওহীদ, স্রষ্টার সার্বভৌমত্ব যা সকল ধর্মের প্রাণ, সকল নবী-রসুল ও অবতারদের আনীত শিক্ষা মর্মকথা। মহামান্য এমামুযযামান হেযবুত তওহীদ আন্দোলন প্রতিষ্ঠা করে সেই মহাসত্যকে সমস্ত মানুষের কাছে পৌঁছে দেবার জন্য আজীবন সংগ্রাম করে গেছেন এবং তাঁর অনুসারী আত্মার সন্তানদেরও সত্য ও ন্যায়ের পক্ষে সংগ্রাম করে যাওয়ার দীক্ষা প্রদান করেছেন। আল্লাহর অসীম করুণা যে, তিনি তাঁর মনোনীত বান্দাকে আমাদের মাঝে প্রেরণ করেছেন। আমরা পথহারা ও গোমরাহ ছিলাম, দিশাহারা ছিলাম। এমামুযযামানের মাধ্যমে আমরা মহাসত্য লাভ করেছি, তাঁকে পেয়ে আমাদের জীবন ধন্য হয়েছে, অস্তিত্ব ধন্য হয়েছে। আজকের এই দিনে আল্লাহর কাছে আমাদের আকুল প্রার্থনা- আল্লাহ যেন আমাদের আত্মার পিতা এমামুযযামানকে সর্বোত্তম মর্যাদা দান করেন।
সেই সাথে আমাদের জন্য এই প্রার্থনা করি যে, এমামুযযামান যেভাবে আমাদেরকে দিক-নির্দেশনা দিয়ে গেছেন, তিনি নিজে যেভাবে আল্লাহর রাস্তায় জীবন ও সম্পদ উৎসর্গ করে গেছেন, আমরাও যেন সেইভাবে আমাদের জীবন-সম্পদ উৎসর্গ করে আমাদের মানবজন্মকে সার্থক করতে পারি। তাঁর অন্তীম নির্দেশ ছিল, “সংগ্রাম চলবে। সংগ্রাম থামবে না। আমি যেভাবে দেখিয়ে দিয়েছি সেভাবে সংগ্রাম চালিয়ে যাবে।” মহান আল্লাহর কাছে আকুল ফরিয়াদ, তিনি যেন আমাদেরকে জীবনের শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত মানবতার কল্যাণে এমামুযযামানের নির্দেশিত পথে দুর্বার সংগ্রাম চালিয়ে যাবার হিম্মত দান করেন। আমরা যেন এমামুযযামানের চাওয়াকে বাস্তবায়ন করতে পারি। পৃথিবীতে সত্য ও ন্যায় প্রতিষ্ঠা করার মাধ্যমে মানবজীবন থেকে সকল অন্যায় অশান্তি নির্মূল করে আখেরী নবীর সত্যিকার উম্মত হিসাবে, এমামুযযামানের আত্মার সন্তান হিসাবে কাল হাশরের দিনে তাঁর সান্নিধ্যে উপনীত হতে পারি।
আজ এমামুযযামান শারীরিকভাবে আমাদের মাঝে নেই কিন্তু আমাদের প্রত্যেকের আত্মায়, চিন্তায়, কর্মে, মর্মে, সত্ত্বায়, এক কথায় আমাদের অস্তিত্বের সাথে তিনি মিশে আছেন। জীবনের অবশিষ্ট প্রতিটি মুহূর্তে যেন আমরা এমামুযযামানকে স্মরণ করে সত্য প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে উৎসাহ ও উদ্দীপনা লাভ করতে পারি আল্লাহর কাছে সেই প্রার্থনা করি। হেযবুত তওহীদের সকল ভাই বোনদেরকে, সকল শুভাকাক্সক্ষীদেরকে আজকের এই দিনে আল্লাহর সঙ্গে মানবতার কল্যাণে জান-মাল কোরবানি করার অঙ্গীকারকে নবায়ন করার আহ্বান করছি।

লেখাটি শেয়ার করুন আপনার প্রিয়জনের সাথে

Share on email
Email
Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on skype
Skype
Share on whatsapp
WhatsApp
জনপ্রিয় পোস্টসমূহ