পঞ্চগড় বোদায় জনসভা

মো’মেন জাতি কখনও খণ্ড-বিখণ্ড ও বিচ্ছিন্ন-বিশৃঙ্খল থাকতে পারে না বলে মন্তব্য করেছেন হেযবুত তওহীদের এমাম হোসাইন মোহাম্মদ সেলিম। তিনি বলেন, “মো’মেনরা হবেন সর্বদা একজাতি, সিদ্ধান্ত হবে একটি, নেতা হবে একজন, কর্মসূচি হবে একটি।” বৃহস্পতিবার (৮ মার্চ ২০১৮) পঞ্চগড়ে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় মুখ্য আলোচকের বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি। বোদা উপজেলার বোদা পাইলট মডেল স্কুল এন্ড কলেজ মাঠে পঞ্চগগড় জেলা হেযবুত তওহীদের উদ্যোগে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।
অনুষ্ঠানে হেযবুত তওহীদের এমাম বলেন, ‘মো’মেনের সমাজে খাদ্যে ভেজাল থাকতে পারে না, ওজনে কম থাকতে পারে না, সন্ত্রাস-হানাহানি থাকতে পারে না, অপরাজনীতি থাকতে পারে না, ঘুষ-দুর্নীতি-রক্তপাত থাকতে পারে না, সাম্প্রদায়িকতা থাকতে পারে না। আজকে আমরা আল্লাহর উপাসনা করি, কিন্তু আল্লাহর হুকুম মানি না। তাই আমাদের চরিত্রে ইতিবাচক পরিবর্তন আসছে না।’
এ সময় তিনি আল্লাহ-রসুলের প্রকৃত ইসলামকে ধারণ করার আহ্বান জানান। প্রকৃত ইসলামের স্বরূপ তুলে ধরে তিনি বলেন, ‘আল্লাহ-রসুলের প্রকৃত ইসলাম শত্রুকে ভাই বানিয়ে দিয়েছিল, স্বার্থপর আত্মকেন্দ্রিককে মানবতার জন্য উৎসর্গকৃতপ্রাণ বানিয়েছিল, যেখানে কোনো নিরাপত্তা ছিল না সেখানে এমন নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠা করেছিল একা একটি মেয়ে মানুষ রাতের অন্ধকারে শত শত মাইল পথ পাড়ি দিত কোনো ভয়-ভীতিও মনে জাগ্রত হত না, ভীরু কাপুরুষকে সাহসী বানিয়েছিল, মাদক নির্মূল করে ফেলেছিল, নারীদের ইজ্জত-মর্যাদা ছিল না সেই নারীকে জাতীয় অর্থনৈতিক সামাজিক সকল কর্মকাণ্ডে অংশগ্রহণের সুযোগ করে দিয়েছিল। কিন্তু আজ ঠিক বিপরীত চিত্র, কারণ ইসলাম বলে যেটা প্রচলিত আছে সেটা বিকৃত ও বিপরীতমুখী ইসলাম।’
হেযবুত তওহীদের এই সর্বোচ্চ নেতা বলেন, ‘অজ্ঞতা সবচাইতে বড় পাপ। আমরা যখন আল্লাহর সত্য ইসলাম নিয়ে দাঁড়িয়েছি, কিছু না জেনে কিছু না বুঝেই আমাকে খ্রিষ্টান অপবাদ দিয়ে মারার জন্য ষড়যন্ত্র শুরু করেছে একটি শ্রেণি, অথচ তারাও নামাজ পড়ে, রোজা রাখে, নিজেদেরকে মুসলমান বলে দাবি করে। তারা আমার বাড়িতে হামলা করল, দুইজন ভাইকে জবাই করে হত্যা করল, আগুনে পোড়ালো। জনগণকে আমার কথা বুঝতে দিল না। আজকে আমি তোমার কাছে লাখ লাখ শোকর আদায় করি হে আল্লাহ, তোমার এই বান্দার হৃদয়ে কী আগুন জ্বলছে, আমার নিয়ত কী, আমি কী বলতে চাই তা হাজার হাজার মানুষের সামনে মাইক লাগিয়ে বলার সুযোগ দিয়েছো। হাজার হাজার মানুষ জানতে পারছে আমি প্রকৃত মো’মেন হতে চাই, আমার জাতিকে প্রকৃত মো’মেন হবার উপায় তুলে ধরতে চাই।’

>তিনি হেযবুত তওহীদের লক্ষ্য-উদ্দেশ্য তুলে ধরেন বলেন, ‘আজকে ইসলামের নামে সন্ত্রাসবাদী কর্মকা- হয়, জঙ্গিবাদ হয়, অপরাজনীতি হয়, ধর্মব্যবসা হয়, কিন্তু আমরা বলতে পারি না যে, এটা আল্লাহ-রসুলের প্রকৃত ইসলাম নয়। কেন পারি না? কারণ আমাদের ইসলাম সম্পর্কে আকীদা বা সম্যক ধারণা নেই। হেযবুত তওহীদ সেই মহামূল্যবান আকীদার কথাই বলে যাচ্ছে। এই আকীদা যখন বুঝবেন তখন নিজেরাই উপলব্ধি করতে পারবেন কোনটা প্রকৃত ইসলাম আর কোনটা বিকৃত ইসলাম।’
তিনি মুসলমানদের বিপদের দিক তুলে ধরে বলেন, ‘দুনিয়াময় মুসলমানদেরকে টার্গেট করেছে সা¤্রাজ্যবাদীরা। সিরিয়ার মুসলমানরা সিরিয়া বাঁচাতে পারে নাই, ইরাকের মুসলমানরা ইরাক বাঁচাতে পারে নাই, আফগানিস্তানের মুসলমানরা আফগানিস্তান বাঁচাতে পারে নাই, লিবিয়ার মুসলমানরা লিবিয়া বাঁচাতে পারে নাই, মিয়ানমারের মুসলমানরা তাদের ইজ্জত আব্রু ধর্ম রক্ষা করতে পারে নাই, কিন্তু বাংলাদেশের মাটিতে আল্লাহ সত্য পাঠিয়েছেন, ইনশা’আল্লাহ ধর্মব্যবসা সাম্প্রদায়িক উন্মাদনা জঙ্গিবাদী তাণ্ডব ও সাম্রাজ্যবাদী আগ্রাসনের হাত থেকে বাংলা সুরক্ষিত থাকবে। তার জন্য সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।
তিনি ইসলামের ইতিহাস থেকে বলেন, ‘আল্লাহর রসুল যখন মদীনায় গেলেন, তখন মদীনায় ইহুদি ছিল, খৃষ্টান ছিল, পৌত্তলিক ছিল, মুসলমান ছিল, এক কথায় সকল ধর্ম-বর্ণের মানুষ থাকত। সবাইকে নিয়ে আল্লাহর রসুল একটি জাতি গঠন করলেন, সবাই একে অপরের নিরাপত্তার জিম্মাদার হয়ে গেল। সবাই ঘোষণা করল- আমরা থাকব যাবতীয় অন্যায়ের বিরুদ্ধে। মদীনা আক্রান্ত হলে সবাই মিলে লড়াই করতেন। আমাদেরকেও মদীনার মত ঐক্যবদ্ধ হয়ে যাবতীয় অন্যায়ের বিরুদ্ধে লড়াই করতে হবে।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বোদা পৌরসভা মেয়র ও বোদা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ওয়াহিদুজ্জামান সুজা। বিশেষ অতিথি ছিলেন, হেযবুত তওহীদের সাধারণ সম্পাদক, জেটিভি অনলাইন’র চেয়ারম্যান ও বাংলাদেশ অনলাইন মিডিয়া এসোসিয়েশনের সভাপতি মো. মশিউর রহমান, বোদা থানা অফিসার ইনচার্জ মো. এ. কে. এম. নূরুল ইসলাম, বোদা মহিলা মহা-বিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ মো. আশরাফুল আলম লিটন, পাথরাজ মহাবিদ্যালয়ের সহকারী অধ্যাপক ও বোদা উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সাবেক কামান্ডার মো. আব্দুর রহমান, বোদা পাইলট গার্লস স্কুল এন্ড কলেজের প্রধান শিক্ষক মো. রবিউল আলম সাবুল, বোদা পাইলট মডেল স্কুল এন্ড কলেজের প্রধান শিক্ষক মো. জামিউল হক, বোদা উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. সাইদুর রহমান, পঞ্চগড় জেলা হেযবুত তওহীদের সাবেক সভাপতি আবু ছাঈদ, হেযবুত তওহীদের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক আশেক মাহমুদ। এতে সভাপতিত্ব করেন পঞ্চগড় জেলা হেযবুত তওহীদের সভাপতি মো. মামুনুর রশীদ।

লেখাটি শেয়ার করুন আপনার প্রিয়জনের সাথে

Share on email
Email
Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on skype
Skype
Share on whatsapp
WhatsApp
জনপ্রিয় পোস্টসমূহ